Home » Lead News2 » জাটকা নিধনের সাথে সংশ্লিষ্ট কাউকে ছাড় দেয়া হবে না…..জেলা প্রশাসক মোঃ মাজেদুর রহমান খান

জাটকা নিধনের সাথে সংশ্লিষ্ট কাউকে ছাড় দেয়া হবে না…..জেলা প্রশাসক মোঃ মাজেদুর রহমান খান

Share Button

স্টাফ রিপোর্টার ॥ চাঁদপুর জেলা প্রশাসক মো. মাজেদুর রহমান খান বলেছেন, ‘আগামী ১০ থেকে ১৬ মার্চ জাটকা সপ্তাহ শুরু হবে। যে কোনো মূল্যেই এটি সফল করতে হবে। ইলিশ শুধু মাছ নয়, ইলিশ চাঁদপুরের ইজ্জত সম্মান ভালোবাসা। তাই কোনো অবস্থাতেই জাটকা ইলিশের গায়ে হাত দেয়া যাবে না। জাটকা নিধনের সাথে সংশ্লিষ্ট কাউকে ছাড় দেয়া হবে না।’ মঙ্গলবার সকাল ১০ টায় জেলা প্রশাসকের সম্মেলন কক্ষে চাঁদপুর জেলা উন্নয়ন সমন্বয় কমিটির মাসিক সভায় সভাপতির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন। সভার শুরুতেই বিগত সভার কার্যবিবরণ পাঠ, সিদ্ধান্ত ও অগ্রগতি তুলে ধরেন অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (রাজস্ব) মোহাম্মদ জামাল হোসেন। জেলা প্রশাসক মো. মাজেদুর রহমান বলেন, ‘জাতীয় নির্বাচন শেষ হয়ে গেছে। সরকার গঠন হয়েছে। মন্ত্রী পরিষদ পূর্নঃগঠন হয়েছে। এখন শুধু কাজ করার পালা। জনগণকে সহজে সেবা দিতে হবে। দেশে প্রচুর উন্নয়ন কাজ হচ্ছে। এই উন্নয়নের সাথে সকলকে সম্পৃক্ত হতে হবে। আমরা যারা সরকারের বিভিন্ন দায়িত্বে রয়েছি সে দায়িত্বে অবহেলা করা যাবে না। কারণ মানুষ এখন কাজ আর সেবা চায়। একটি উন্নত সমৃদ্ধ বাংলাদেশ গড়তে বর্তমান সরকার বদ্ধপরিকর। সে লক্ষ্য নিয়ে আমাদের কাজ করতে হবে।’ তিনি বলেন, ‘চাঁদপুর নৌ-রুটে যাত্রীবাহী লঞ্চ থেকে নদীতে ময়লা আবর্জনা ফেলা হচ্ছে। এ বিষয়ে স্ব স্ব উপজেলা কর্মকতাগণ ব্যবস্থা নিবেন। এখন থেকে নদীতে ময়লা ফেলা যাবে না। প্রতিটি লঞ্চে ঝুড়ি রাখতে হবে এবং ঝুড়িতেই ময়লা ফেলতে হবে।’ সভায় বিভিন্ন সমস্যা, সম্ভাবনা ও প্রস্তাবনা জানিয়ে বক্তব্য রাখেন, সহকারী পুলিশ সুপার শাকিলা ইয়াসমিন সূচনা। তিনি বক্তব্যে বলেন,‘চাঁদপুরের আইন-শৃঙ্খলা পরিস্থিতি ভালো রয়েছে। আমাদের পুলিশ সুপার স্যারের নেতৃত্বে মাদক, সন্ত্রাস, ইভটিজিং সহ সকল অপরাধ নির্মূলে জেলা পুলিশ কাজ করছে। তিনি আরো বলেন, অবৈধ মোটরযান চলাচল বন্ধে ট্রাফিক বিভাগ কাজ করছে। ট্রাফিক সপ্তাহ সম্পন্ন হয়েছে। চাঁদপুর শহরে ব্যাটারি চালিত মোটরের রিক্সা চলাচল বন্ধে অভিযান করা হবে।’ চাঁদপুর পৌরসভার মেয়র ও জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি নাছির উদ্দিন আহমেদ বলেন, ‘একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন চাঁদপুরে অত্যন্ত সুন্দর এবং সুশৃঙ্খলভাবেই অনুষ্ঠিত হয়েছে। এর জন্য জেলা আওয়ামী লীগের পক্ষ থেকে তিনি জেলা প্রশাসন, পুলিশ প্রশাসন এবং নির্বাচন সংশ্লিষ্ট সকলকে ধন্যবাদ জানান।’ তিনি আরো বলেন, ‘মুক্তিযুদ্ধের স্বপক্ষের শক্তি মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় বাংলাদেশকে এগিয়ে নিয়ে যাবে এবং দেশ এগিয়ে যাবে। জননেত্রী ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও তাঁর সরকার এবার নির্বাচনে যে ইশতেহার দিয়েছেন। তার ভিতর মাদক, সন্ত্রাস এবং দুর্নীতি সমাজের দুষ্টক্ষত। সরকার এর বিরুদ্ধে যুদ্ধ ঘোষনা করেছে। আমাদের সরকার আশা করি সফল হবে।’ এ সময় জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আবু নঈম পাটওয়ারী দুলাল, চাঁদপুর সরকারি জেনারেল হাসপাতালের তত্ত্বাবধারক ডাঃ আনোয়ারুল আজিম, চাঁদপুর সরকারি কলেজের অধ্যক্ষ প্রফেসর ড. এএসএম দেলওয়ার হোসেন, জেলা পরিষদ সচিব মো. মিজানুর রহামান, জেলা সির্ভিল সার্জন (ভারপ্রাপ্ত) ডাঃ মাহবুবুর রহমান, স্বাধীনতা প্রদক প্রাপ্ত নারী মুক্তিযোদ্ধা ডাঃ সৈয়দা বদরুন নাহার চৌধুরী, চাঁদপুর প্রেসক্লাব সাধারণ সম্পাদক লক্ষ্মণ চন্দ্র সূত্রধর, জেলা মৎস্য কর্মকর্তা আসাদুল বাকী, পুরাণবাজার ডিগ্রি জর অধ্যক্ষ রতন কুমার মজুমদারসহ সকল উপজেলা নির্বার্হী কর্মকর্তাগণ এবং কমিটির অন্যান্য সদস্যবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

Facebook Comments
Share Button