Home » বিশ্ব সংবাদ » ভেনিজুয়েলা ইস্যুতে যুক্তরাষ্ট্রকে রাশিয়ার হুশিয়ারি

ভেনিজুয়েলা ইস্যুতে যুক্তরাষ্ট্রকে রাশিয়ার হুশিয়ারি

Share Button

চাঁদপুরজমিন রিপোর্ট ॥  ভেনিজুয়েলায় প্রেসিডেন্ট নিকোলাস মাদুরোবিরোধী চলমান বিক্ষোভে সামরিক হস্তক্ষেপ না করতে যুক্তরাষ্ট্রকে হুশিয়ারি করেছে রাশিয়া।

দেশটির উপপররাষ্ট্রমন্ত্রী রেবকভের বরাতে বার্তা সংস্থা ইন্টারফ্যাক্স জানিয়েছে, এমন কোনো উদ্যোগের পরিণতি হবে বিপর্যয়কর।

রেবকভ বলেন, ভেনিজুয়েলার সার্বভৌমত্ব রক্ষা ও ঘরোয়া বিষয় আশয়ে হস্তক্ষেপ না করার নীতিতে  পাশে থাকবে রাশিয়া।

এদিকে ভেনিজুয়েলায় রাজনৈতিক সংকটের জন্য পাশ্চাত্য দেশগুলোকে সমালোচনায় ধুয়ে দিয়েছে রাশিয়া।

যুক্তরাষ্ট্র ও তার মিত্র দেশগুলো ভেনিজুয়েলার স্বঘোষিত প্রেসিডেন্ট হিসেবে বিরোধীদলীয় নেতা জোয়ান গুইডোকে স্বীকৃতি দেয়ার পর বৃহস্পতিবার প্রথমবারের মতো প্রতিক্রিয়া জানায় মস্কো।

দক্ষিণ এশিয়ার দেশটিতে মাদুরোবিরোধী বিক্ষোভের প্রতিক্রিয়ায় রাশিয়ার পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র মারিয়া জাখারোভা বলেন, ক্ষমতার পরিবর্তন চাওয়া ভেনিজুয়েলায় চলমান ঘটনাবলিতে আন্তর্জাতিক আইন, সার্বভৌমত্ব ও একটি দেশের অভ্যন্তরীণ বিষয়ে হস্তক্ষেপের বিষয়ে প্রগতিশীল আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের দৃষ্টিভঙ্গি প্রতিফলিত হয়েছে।

জাখারোভা আলজেরিয়া থেকে এ মন্তব্য করেছেন। এদিকে ভেনিজুয়েলার চলমান সংকটে মেক্সিকো, কিউবা ও তুরস্ক প্রেসিডেন্ট নিকোলাস মাদুরোর পাশে দাঁড়িয়েছে।

মাদুরোর সঙ্গে সংহতি জানিয়ে তুরস্কের প্রেসিডেন্ট রিসেপ তাইয়েপ এরদোগান বলেন, আমার ভাই মাদুরো, সোজা হয়ে দাঁড়ান, আমরা আপনার পাশেই আছি।

এদিকে সেনাবাহিনীকে ঐক্য ও শৃঙ্খলা মেনে চলার আহ্বান জানিয়েছেন প্রেসিডেন্ট মাদুরো।

বুধবার দেশটির বিরোধীদলীয় নেতা জোয়ান গুইডো নিজেকে অন্তর্বর্তীকালীন প্রেসিডেন্ট ঘোষণার পর সেনাবাহিনীর সহায়তা চেয়েছেন।

এদিকে সমাজতন্ত্রী সরকারের বিরুদ্ধে বিরোধীদলীয় নেতা জোয়ান গুইডোকে দেশটির প্রেসিডেন্ট হিসেবে স্বীকৃতি দিয়েছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। এতে যুক্তরাষ্ট্র ছাড়াও বেশ কয়েকটি দক্ষিণ আমেরিকার দেশও তাকে সমর্থন জানিয়েছে।

অপরদিকে ২০১৩ সাল থেকে ক্ষমতায় থাকা তেলসমৃদ্ধ দেশটির সমাজতান্ত্রিক প্রেসিডেন্ট নিকোলাস মাদুরো যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে সম্পর্ক ছিন্ন করার ঘোষণা দিয়েছেন।

জোয়ান গুইডো নিজেকে প্রেসিডেন্ট ঘোষণার কিছুক্ষণ পর যুক্তরাষ্ট্র তাকে স্বীকৃতি দিয়েছে এবং একটি নির্বাচন অনুষ্ঠানে তার পরিকল্পনাকে স্বাগত জানিয়েছে। কানাডা, ব্রাজিল ও কলোম্বিয়াও যুক্তরাষ্ট্রের মতো হুবহু বিবৃতি দিয়েছে।

ভেনিজুয়েলার রাজধানী কারাকাসে এক সমাবেশে মাদুরোর বিরুদ্ধে ক্ষমতা জবরদখলের অভিযোগ করেন গুইডো। পরে অতিমুদ্রাস্ফীতিতে ধ্বংস হয়ে যাওয়া অর্থনীতিকে উদ্ধার করতে একটি অন্তর্বর্তীকালীন সরকার প্রতিষ্ঠার প্রতিশ্রুতি দেন তিনি।

তিনি বলেন, আমাদের ওপর হস্তক্ষেপ করা হচ্ছে, আবার আমরা মর্যাদাও দাবি করছি- তাই না! এখানেও নিজ ভূখণ্ড রক্ষায় লড়াই করার ইচ্ছা আমাদের জনগণের আছে।

মাদুরো ভেনিজুয়েলার প্রয়াত প্রেসিডেন্ট হুগো শ্যাভেজের উত্তরসূরি। বামপন্থী শ্যাভেজ প্রেসিডেন্ট থাকাকালে বিভিন্ন সময় যুক্তরাষ্ট্রের বিরুদ্ধে তাকে উৎখাতের ষড়যন্ত্রের অভিযোগ তুলেছিলেন।

Facebook Comments
Share Button